এক স্ত্রীকে নিয়ে দুই স্বামীর সংঘর্ষ, প্রাণ গেল প্রথম স্বামীর

বাগেরহাটের শরণখোলায় একজন স্ত্রীকে নিয়ে দুই স্বামীর দ্বন্দ্বের সংঘর্ষে আহত চিকিৎসাধীন প্রথম স্বামী শাহ আলম বিশ্বাস মারা গেছেন। শনিবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত শাহ আলমের মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে এ ঘটনায় ঢাকার শাহবাগ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলে নিহতের ছোট ভাই ফারুক বিশ্বাস জানায়।

- Advertisement -

স্থানীয়দের সূত্র জানায়,  প্রায় দেড় যুগ আগে উপজেলার পশ্চিম কদমতলা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রহমান বিশ্বাসের ছেলে  মো. শাহ আলম বিশ্বাসের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী খাদা গ্রামের মো. মানিক হাওলাদারের মেয়ে নুপুর বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে তিনটি সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি নুপুর শাহ আলমকে বাদ দিয়ে প্রতিবেশী উপজেলার রায়েন্দা বাজারের পাঁচ-রাস্তার মোড় এলাকার মুদি ব্যবসায়ী আ. রহমান হাওলাদারকে বিয়ে করেন ।

এ ঘটনায় শাহ আলম বিশ্বাস ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২২ জুলাই রাতে রহমান হাওলাদারকে কুপিয়ে আহত করেন । ওই সময় আ. রহমানের আত্মীয়রা একজোট হয়ে শাহ আলমকে হাতুড়িপেটা করে গুরুতর জখম করেন।

স্থানীয়রা তাকে তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে মারাত্মক আহত অবস্থায় প্রথমে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেন চিকিৎসক। পরে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।  একপর্যায়ে শনিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে শাহ-আলম মারা যান।

শরণখোলা থানার ওসি এস.কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান,  হামলার ঘটনায় রহমানের পক্ষে একটি মামলা হয়েছে। তবে, শাহ আলম বিশ্বাসের পক্ষে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত দিন