যে কারণে বন্ধ হচ্ছে স্টার জলসাসহ ভারতের ৭ চ্যানেল

স্টার জলসা

স্টার জলসাসহ ভারতীয় স্টার গ্রুপের সাত চ্যানেলের পরিবেশক জাদু ভিশনের স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে এসব চ্যানেল বাংলাদেশে প্রদর্শন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ক্যাবল অপারেটর্স অব বাংলাদেশ (কোয়াব)। এর আগে গত ২৮ অক্টোবর একটি সংবাদ সম্মেলন করে তারা জাদু ভিশনের এমন আচরণের প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। তবে গত বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে তারা এই সাতটি চ্যানেলকে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘স্টার গ্রুপের পে চ্যানেলগুলোর বাংলাদেশের পরিবেশক যাদু ভিশন লি. কর্তৃক কেবল টিভি অপারেটরদের সঙ্গে অব্যবসায়িক আচরণ, অপারেটর কর্তৃক টাকা পরিশোধের প্রাপ্তি রসিদ প্রদানে অসহযোগিতা, সম্পূরক শুল্কের রসিদ প্রদানে অসম্মতি এবং বিভিন্নভাবে কেবল টিভি অপারেটরদের হয়রানির প্রতিবাদে গত ২৮ অক্টোবর যাদু ভিশন কর্তৃক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কারণে কোয়াব ঐক্যপরিষদ এক সংবাদ সম্মেলন করে। সেই সংবাদ সম্মেলনে কেবল অপারেটরদের সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে আলোচনার পথ উন্মুক্ত রেখে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত সময় প্রদান করা হয়। কিন্তু আমাদের দেওয়া সময় অনুযায়ী সমস্যাগুলো নিরসনের জন্য যাদু ভিশন কর্তৃক কোনো ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় গত ৪ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা থেকে যাদু ভিশন পরিবেশিত চ্যানেলগুলো বাংলাদেশের বেশির ভাগ কেবল অপারেটর অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য সম্প্রচার বন্ধ রেখেছে।’

- Advertisement -

কোয়াবের প্রেসিডেন্ট এস এম আনোয়ার পারভেজ সাংবাদিকদের বলেন, ‘দেশজুড়ে কেবল অপারেটরদের এসব চ্যানেল প্রদর্শন না করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, এরই মধ্যে অনেক কেবল অপারেটর এই চ্যানেলগুলো বাদ দিয়েছেন এবং অন্যরাও প্রক্রিয়াধীন আছেন। তিনি যাদু ভিশনের বিরুদ্ধে অপারেটরদের সঙ্গে অশোভনীয় আচরণ এবং ‘পেইড চ্যানেল’ ইচ্ছামতো বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার অভিযোগ আনেন।

এর আগে যাদু ভিশন লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কুনাল দেশমুখ সাংবাদিকদের বলেন, ‘বর্তমানে দেশে ছয় শতাধিক বৈধ কেবল অপারেটর রয়েছেন, যাঁদের মধ্যে অল্প কিছুসংখ্যক কেবল অপারেটর নিজেদের কোয়াব ঐক্যপরিষদ বলে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন সময় অবাঞ্ছিত কিছু বিষয় সামনে নিয়ে এসে নিজেদের আধিপত্য প্রমাণের চেষ্টা করছেন।’

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -