সরিষাবাড়ীতে কাঠের সেতু ভাংচুর, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

Sarishabari
ভাংচুর করা কাঠের সেতু।

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় ৫ গ্রামের মানুষের একমাত্র চলাচলের কাঠের সেতু ভাংচুর করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ১৮ নভেম্বর রাতে উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চরশিশুয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার হাটবাড়ী, সিংগুরিয়া, শুয়াকৈর, হেলাঞ্চাবাড়ী ও সিধুলির এ পাঁচ গ্রামের মানুষদের চলাচলের জন্য নিজেদের অর্থায়নে চরশিশুয়া পাকা রাস্তার পাশে খালের ওপর একটি কাঠের সেতু নির্মাণ করেন। গত কয়েকদিন ধরে ওই কাঠের সেতু থেকে শুয়াকৈর মকবুল হোসেনের বাড়ি পর্যন্ত কাঁচা রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু করে গ্রামবাসী। রাস্তা নির্মাণে চরশিশুয়ার কোরবান আলীর অধিকাংশই জমি রাস্তায় বেশি পড়ায় তিনি বাধা দেয়। এ নিয়ে ১৮ নভেম্বর বিকালে দু’পক্ষের সমর্থনের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। সন্ধায় কাঠের সেতুটি কে বা কারা ভাংচুর ও আগুন লাগালে এনিয়ে হেলাঞ্চাবাড়ী ও চরশিশুয়া দুই গ্রামবাসীর মধ্যে লাঠিসোটা নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এদিকে ১৯ নভেম্বর সকালে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এ সময় থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

- Advertisement -

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু মো. ফজলুল করীম এ প্রতিবেদককে জানান, কাঠের সেতুর কয়েকটি পাটাতন ভাংচুর ও রাস্তার জমি নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। দুই গ্রামবাসী বসে বিষয়টি সমাধান করবেন বলে তাকে এলাকাবাসী জানায়।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -